পরীক্ষা ছাড়াই শিক্ষার্থীরা পাচ্ছে জিপিএ-৫

পরীক্ষা ছাড়াই জিপিএ-৫। বিভিন্ন শিক্ষাবোর্ড থেকে জানা গেছে, জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের এইচএসসি পরীক্ষাও দেওয়া হবে জিপিএ-৫। তবে এ দুটির একটিতে খারাপ হলেও তা যোগ করে তার অধের্ক দেয়ার চিন্তাভাবনা রয়েছে।

পরীক্ষা ছাড়াই জিপিএ-৫ । এ বছর জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার ওপর মূল্যায়ন করে এইচএসসির ফলাফল প্রকাশ করা হবে।

করোনা’র কারণে এবারের এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা বাতিল করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

একাধিক শিক্ষা বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, পরীক্ষার্থীদের জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর যোগ করে তার অর্ধেক নম্বর এইচএসসিতে দেয়া হতে পারে।

এ দুটি পরীক্ষার মধ্যে কারও একটি স্তরের মোট নম্বর কম হলেও তাদের ক্ষেত্রেও একই পদ্ধতি অনুসরণ করা হতে পারে।

তবে যাদের জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ রয়েছে তাদের এইচএসসিতেও জিপিএ-৫ দেয়া হবে।

এখানে ক্লিক করে আরও খবর দেখুন

পরীক্ষা ছাড়াই জিপিএ-৫ । বুধবার (৭ অক্টোবর) সাংবাদিকদের সঙ্গে ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি এমন ঘোষণা দিয়েছেন।

তাদের অটোপাস দেয়া হবে যারা এক অথবা দুই বিষয়ে ফেল করে পুনরায় পরীক্ষা দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। পরীক্ষা ছাড়াই জিপিএ-৫ ।

এ বছর জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার ওপর মূল্যায়ন করে এইচএসসির ফলাফল প্রকাশ করা হবে।

করোনা’র কারণে এবারের এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা বাতিল করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

একাধিক শিক্ষা বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, পরীক্ষার্থীদের জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষার পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর যোগ করে তার অর্ধেক নম্বর এইচএসসিতে দেয়া হতে পারে।

এ দুটি পরীক্ষার মধ্যে কারও একটি স্তরের মোট নম্বর কম হলেও তাদের ক্ষেত্রেও একই পদ্ধতি অনুসরণ করা হতে পারে।

তবে যাদের জেএসসি ও এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ রয়েছে তাদের এইচএসসিতেও জিপিএ-৫ দেয়া হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আন্তঃশিক্ষা সমন্বয়ক বোর্ডের সভাপতি অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক গণমাধ্যমকে বলেন,

যে সব শিক্ষার্থীর জেএসসি ও এসএসসিতে জিপিএ-৫ থাকবে এইচএসসিতেও তাদের জিপিএ-৫ দেয়া হতে পারে।

এক ও দুই বিষয়ে ফেল করে পুনরায় নিবন্ধন করা শিক্ষার্থীদের সেসব বিষয়ে পাস করিয়ে মোট জিপিএ দিয়ে ফলাফল প্রকাশ করা হবে।

নিচের স্তরের উভয় পরীক্ষায় কম জিপিএ নম্বর অর্জনকারী শিক্ষার্থীরা এইচএসসি পরীক্ষায় ভালো করবে সেই সম্ভাবনা অনেক থাকে।

এ কারণে তাদের পাস করিয়ে দেয়া হলেও জিপিএ নম্বর কম থাকবে।

তবে সকল সিদ্ধান্ত শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের টেকনিক্যাল কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে চূড়ান্ত করা হবে।

Leave A Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »
Cart
Your cart is currently empty.